Breaking News

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞ সেনাপ্রধান || RIGHTBD


সেনাবাহিনীকে সর্বাত্মক সহযোগিতা ও আধুনিকায়নে নেয়া নানা উদ্যোগের জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন বিদায়ী সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক।

রবিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করে তিনি এই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সেনাপ্রধানের পদ থেকে অবসরকালীন ছুটিতে যাওয়ার আগের দিন রবিবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে যান বেলাল। সেখানকার বকুল হলে সরকার প্রধানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি।

বাংলাদেশের সপ্তদশ সেনাপ্রধান আবু বেলালের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামীকাল ২৫ জুন। তিনি ২০১৫ সালের এই দিন দায়িত্ব নেন ইকবাল করিম ভুইয়ার কাছ থেকে।

রীতি অনুযায়ী মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে সেনাপ্রধানরা সরকার প্রধানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

বেলালের মেয়াদ শেষ হওয়ার এক সপ্তাহ আগে গত ১৮ জুন দেশের অষ্টাদশ সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয় আজিজ আহমেদকে। তিনি আগামীকাল বেলালের কাছ থেকে তিন বছরের জন্য দায়িত্ব নেবেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতে বিদায়ী সেনাপ্রধান তার মেয়াদের সময় সেনাবাহিনীকে সর্বাত্মক সহযোগিতা ও আধুনিকায়নে নেয়া নানা উদ্যোগের জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে সশস্ত্র বাহিনীর উন্নয়নে নানামুখি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। নৌবাহিনীর জন্য কেনা হয়েছে দুটি সাবমেরিন, বিমানবাহিনীতে যুক্ত হয়েছে আধুনিক বিমান ও আকাশ প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম। একই সঙ্গে সেনাবাহিনীর জন্য আট হাজার কোটি টাকার সমরাষ্ট্র কেনা হয়েছে কেবল রাশিয়া থেকে। আবার ভারত থেকেও চার হাজার কোটি টাকার ঋণ নেয়া হয়েছে সশস্ত্র বাহিনীর জন্য যুদ্ধাস্ত্র কিনতে।

এই আমলে একাধিক সেনানিবাস, সেনাবাহিনীর জনবল বাড়ানো, উন্নত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও হয়েছে। সেই সঙ্গে সেনাবাহিনীর জনসম্পৃক্ত কর্মকাণ্ড বেড়েছে, তারা মেডিকেল কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ও পরিচালনা করছে।

সেনাপ্রধানের সঙ্গে সাক্ষাতের পর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর কার্যালয়ে সাক্ষাত করেন নিযুক্ত নেপালের রাষ্ট্রদূত চোপ লাল বোসাল। এ সময় দুই দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয় বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কর্মকর্তারা।

No comments